Image
  • Friday, 01 March 2024
মাঈনুল হোসেন খান নিখিল

মাঈনুল হোসেন খান নিখিল

মাঈনুল হোসেন খান নিখিল

২০১৯ সালের ২৩ নভেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কংগ্রেসে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল

 

আন্দোলন ও সংগ্রামের মাধ্যমে তৃণমূল থেকে গড়ে উঠা নেতৃত্ব আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিলের রাজনৈতিক ইতিহাস সুদীর্ঘ। আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল ১৯৮০ সালের দিকে লালবাগ থানা ছাত্রলীগের কর্মী ছিলেন। ১৯৮৭ সালে যোগ দেন যুবলীগে। তৎকালীন ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের একটি আহ্বায়ক কমিটি ছিল। ওই আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন নিখিল । তিনি ১৯৯৪ সালে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ২০০৩ সালে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। জামাত-বিএনপি জোট সরকারের বিরুদ্ধে যুবলীগের প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামের তার জোরালো অবদান ছিল।

 

তিনি ২০১২ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ষষ্ঠ জাতীয় কংগ্রেস ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। চাঁদপুরের মতলব উপজেলার ৫ নং দুর্গাপুর ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের ঐতিহ্যবাহী খান পরিবারে ১৯৬৪ সালের ২৭ জুন জন্ম নেয়া আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর জীবনের সিংহভাগ কেটেছে ঢাকার মিরপুরে। বাবা প্রয়াত হাজী মোঃ মোফাজ্জল হোসেন ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে কর্মরত সরকারি চাকরিজীবী। চাকরি থেকে অবসর নিয়ে তিনি আওয়ামী রাজনীতিতে সরাসরি অংশ গ্রহন করে চাঁদপুর জেলা অর্ন্তগত ৫নং দুর্গাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং মতলব-উত্তর থানা আওয়ামীলীগ -এর সহ সভাপতি নির্বাচিত হয়ে সততার ও নিষ্ঠার সাথে তৃনমূলের প্রতিটি ইউনিটের কর্মীদের কে সুসংগঠিত করেন ।

 

আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর মা প্রয়াত হামিদা বেগম‌। পরিবারের বাকি সদস্যরা আওয়ামী রাজনীতির সাথে যুক্ত।তার স্ত্রী মমতাজ আহমেদ একজন গৃহিণী। আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর দুই ছেলে: বড় ছেলে মাসরুর হোসেন খান নাবিল একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের ছাত্রবৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক এবংছোট ছেলে মুসারাত হোসেন খান (নাহিদ) উচ্চ মাধ্যমিক কলেজে পড়াশুনা করেন । আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে তিনি ১৯৭৯ সালে মাধ্যমিক পাশ করেন। ১৯৮২ সালে কালিয়াকৈর কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। পরবর্তিতে বগুড়ার শাহ সুলতান কলেজ থেকে তিনি ১৯৮৫ সালে স্নাতক সম্পন্ন করেন।

 

পেশাগত জীবনে মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল একজন ব্যবসায়ী। দীর্ঘ সময় ধরে তিনি যুক্ত আছেন ঠিকাদারি ব্যবসার সঙ্গে। পেশাগত ও রাজনৈতিক জীবনের বাইরে মাইনুল হোসেন খান নিখিল একজন সমাজসেবক। একজন শিক্ষানুরাগী হিসেবে তার ভূমিকা সুবিদিত। যে স্কুলে তার পড়াশোনার হাতেখড়ি বর্তমানে তিনি সেই নিশ্চিন্তপুর উচ্চবিদ্যালয় ও নিশ্চিন্তপুর ডিগ্রী কলেজের সভাপতি। এছাড়াও ধর্মানুরাগী ব্যক্তি হিসেবে তিনি খান বাড়ী বায়তুল ফালাহ্ জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি , পশ্চিম মনিপুরের বাইতুল আমান জামে মসজিদ ও বাইতুল মা’মুর জামে মসজিদ, মধ্য মনিপুরের দারুল কোরআন এতিমখানা ও মাদ্রাসা, দক্ষিণ মনিপুরের বাইতুল আশরাফ জামে মসজিদ, পূর্ব মনিপুরের বাইতুল রব জামে মসজিদ এবং পশ্চিম কাজিপাড়ার বাইতুল আহসান জামে মসজিদ ও মাদরাসার উপদেষ্টা। তিনি ২০১০ সালে জাতিসংঘের সাধারন অধিবেশনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা'র সফর সঙ্গী হন।

comment / reply_from