যুবলীগ সংবাদ :

শোকাবহ আগস্ট মাসব্যাপী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কর্মসূচী যুবজাগরণ পাঠাগার ও বিক্রয়কেন্দ্র উদ্বোধন বঙ্গমাতাকে নিয়ে যুবলীগের স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে : যুবলীগ চেয়ারম্যান জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়তে যুবলীগের শপথ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস পালিত শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে যুবলীগের সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বইমেলায় যুবলীগের নান্দনিক আয়োজন যুবলীগ চেয়ারম্যান সম্পাদিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির ৭৭ তম জন্মদিন পালিত। পৌর নির্বাচনী প্রচারণায় যুবলীগের কমিটি গঠন মোমবাতি জ্বালিয়ে শহীদদের প্রতি যুবলীগের শ্রদ্ধা মালয়েশিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার অগ্রযাত্রার মিছিলে তারুণ্যের প্রেরণা আর সাহসের দিন শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস---যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী
“বিশ্ব শান্তির বৃক্ষ”রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা, আর “বিশ্ব স্বাস্থ্যের আলোকবর্তীকা”মনোবিজ্ঞানী সায়মা বাংলাদেশের সুনাম। জোট নেত্রী খালেদাজিয়া, দূর্নীতির বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান তারেক জিয়া বাংলাদেশের বদনাম।
2014/09/10 01:52 PM

“বিশ্ব শান্তির বৃক্ষ”রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা, আর
“বিশ্ব স্বাস্থ্যের আলোকবর্তীকা”মনোবিজ্ঞানী সায়মা বাংলাদেশের সুনাম।
জোট নেত্রী খালেদাজিয়া, দূর্নীতির বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান তারেক জিয়া বাংলাদেশের বদনাম।
“বিশ্ব শান্তির বৃক্ষ”রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা, আর
“বিশ্ব স্বাস্থ্যের আলোকবর্তীকা”মনোবিজ্ঞানী সায়মা বাংলাদেশের সুনাম।
জোট নেত্রী খালেদাজিয়া, দূর্নীতির বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান তারেক জিয়া বাংলাদেশের বদনাম।
                            ......................যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেছেন “বিশ্ব শান্তির বৃক্ষ”রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা,আর “বিশ্ব স্বাস্থ্যের আলোকবর্তীকা”মনোবিজ্ঞানী সায়মা বাংলাদেশের সুনাম। জোট নেত্রী খালেদাজিয়া, দূর্নীতির বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান তারেক জিয়া বাংলাদেশের বদনাম। আজ  ১০ সেপ্টেম্বর  বুধবার সকাল ১১ টায় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে  যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিন আয়োজিত আনন্দ মিছিল পূর্ব সমাবেসে প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান  এ কথা বলেছেন। সভায় বিষেশ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী  যবুলীগ সাধারন সম্পাদক মো: হারুনুর রশীদ। সভাপতিত্ব করেন যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিন সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী স¤্রাট পরিচালনা করেন  দক্ষিন যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী  যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন দেশে নারী ও কন্যা শিশুদের শিক্ষা প্রসারের স্বীকৃতি হিসাবে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাকে “শান্তি বৃক্ষ” পুরস্কার, আর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার ও অটিজম বিষয়ে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা হোসেন পুতুলকে “এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড” পুরষ্কার দিয়েছেন। এ দুটি অসামান্য ও অভাবনীয় অর্জনের জন্য যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা ও তার কন্যা সায়মা হোসেন পুতুলকে অভিনন্দন জানান। বাঙালী জাতির জন্য এত বড় দুটি অর্জনে যুবলীগ চেয়ারম্যান রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা ও তার  সুযোগ্য কন্যা সায়মা হোসেন পুতুলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন একই দিনে প্রথক দুটি অনাষ্ঠানে মা-মেয়ের এই অভাবনীয় সাফল্যের খবরে যুব সমাজ তথা দেশবাসী আনন্দিত।  ৮ সেপ্টেম্বের “টেকসই উন্নয়নের ভিত্তি” শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে ইউনেস্কো মহাপরিচালক হরিনা বোকোভা “শান্তি বৃক্ষ” সম্মাননা স্মারক তুলেদেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেক হাসিনার হাতে। অন্য দিকে রাজধানীর হোটেল সোনার গাঁওয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের স্বাস্থ্য মন্ত্রীদের ৩২তম সম্মেলন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে সায়মা হোসেন পুতুলের এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পুরষ্কারের তথ্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক পুনম ক্ষেত্র পাল সিং ৯ সেপ্টেম্বর সায়মা হোসেন পুতুল এর হাতে এ পুরষ্কার তুলে দেন।
যুবলীগ চেয়ারম্যান ইউনেস্কো প্রধানের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা ইউনেস্কোর একজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। ২০১১ সালে ইউনেস্কো যখন বৈশ্বিক অংশীদারিত্বে নারী ও কন্যাশিশুদের জন্য শিক্ষার কাজ শুরু করে তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশগ্রহণে বিশেষভাবে সম্মানিত হয়েছিলো ইউনেস্কো। ইউনেস্কো মনে করে টেকসই শান্তি ও স্বাধীনতা তখনই অর্জন করা সম্ভব হবে, যখন নারী ও কন্যাশিশুর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করা হবে এবং পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রে নারীরা অবদান রাখতে পারবে। ইউনেস্কো প্রধান “শান্তি বৃক্ষ” সম্মাননা স্মারক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেয়ার সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে “সাহসী নারী” হিসেবে অভিহিত করেন।
যুবলীগ চেয়ারম্যান  বলেন রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সাহসী নারী বলেই বাংলাদেশে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, জনগণের ক্ষমতায়ন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, আইনের শাষণ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তিনি কৃতজ্ঞচিত্তে বলেন, দেশের জন্য এত বড় অর্জন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা ও তার পরিবারের সদস্যদের দ্বারাই সম্ভব। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমান, শিক্ষা প্রশিক্ষন পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক মিজানুল ইসলাম মিজু, উপ-সম্পাদক শেখ বোরহান উদ্দিন বাবু, শ্যামল কুমার রায়, মোঃ রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, সহ-সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলামসহ কেন্দ্রীয় ও মহানগরের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

 

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার তথ্যকণিকা

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

চেয়ারম্যান ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

সাধারণ সম্পাদক ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

যুবলীগ প্রকাশনা