যুবলীগ সংবাদ :

শোকাবহ আগস্ট মাসব্যাপী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কর্মসূচী যুবজাগরণ পাঠাগার ও বিক্রয়কেন্দ্র উদ্বোধন বঙ্গমাতাকে নিয়ে যুবলীগের স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে : যুবলীগ চেয়ারম্যান জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়তে যুবলীগের শপথ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস পালিত শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে যুবলীগের সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বইমেলায় যুবলীগের নান্দনিক আয়োজন যুবলীগ চেয়ারম্যান সম্পাদিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির ৭৭ তম জন্মদিন পালিত। পৌর নির্বাচনী প্রচারণায় যুবলীগের কমিটি গঠন মোমবাতি জ্বালিয়ে শহীদদের প্রতি যুবলীগের শ্রদ্ধা মালয়েশিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার অগ্রযাত্রার মিছিলে তারুণ্যের প্রেরণা আর সাহসের দিন শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস---যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী
‘বেগম জিয়ার উস্কানীতেই হেফাজতের নাশকতা’: যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী
03/03/2014 12:52 AM

০৬ মে, ২০১৩ 

‘বেগম জিয়ার উস্কানীতেই হেফাজতের নাশকতা’: যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেছেন, ৫ মের ঘটনাপ্রবাহে আবারও প্রমাণ হয়েছে ধর্মের আড়ালে হেফাজতে ইসলাম আসলে সন্ত্রাসী সংগঠন। এটি মানবতাবিরোধী একটি ফ্যাসিষ্ট সংগঠন। ইসলামের লেবাসে যারা কোরআন শরীফে আগুন দেয় তারা মুসলমান হতে পারে না। গতকাল সোমবার আমাদের অর্থনীতিতে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন। বিবৃতিতে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়ে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, ওই তারিখের তথাকথিত ‘অবরোধ’ আমাদের মূলত হেফাজতের নাশকতা স্মরণ করিয়ে দেয়। এ যেন ’৭১-এর জামায়াত শিবিরের তাণ্ডব।  

হেফাজতে ইসলামের কর্মসূচি চলাকালে বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেটে পবিত্র কোরআন শরীফের বিপুলসংখ্যক কপি পুড়িয়ে দেওয়ার কথা উল্লেখ করে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, সেই সঙ্গে অন্যান্য কয়েক হাজার ধর্মীয় বইও পুড়িয়েছে তারা। যারা কোরআন শরীফ পোড়ায় তারা মুসলমান হতে পারে না। তিনি বলেন, মানুষকে জিম্মি করার নাম রাজনীতি হতে পারে না। এসব দোকানে পবিত্র কোরআন শরীফসহ ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বই, হাদিস শরীফ ও মহানবী (সা.) জীবনী এবং আরও অনেক ওলি-আউলিয়াদের জীবনের ওপর লেখা বই বিক্রি হতো। হেফাজত কর্মীরা এসব বইয়ের দোকানে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। এমনকি খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর কর্মীরা ঘটনাস্থলে এলেও তাদের তাণ্ডবের কারণে আগুন নেভাতে পারে না।  

ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, এদেশের মানুষ চায় হেফাজতের তাণ্ডবে সহায়তাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। যারা হেফাজতকে সাহায্য করার ঘোষণা দিয়েছিল তারাও এই ধ্বংসযজ্ঞের জন্য দায়ী। তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ। সবাই জানেন, হেফাজতের রোববারের সমাবেশে সমর্থন জানিয়ে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়া। আর এতে পরিষ্কার হয়ে ওঠে, নিজেদের তৈরি করা ‘মোড়কে’ জামায়াত-শিবির-বিএনপি-হেফাজতের কর্মীরাই সুযোগ নিয়ে এ হামলা চালিয়েছে। হেফাজতকর্মীরা পল্টন, বায়তুল মোকাররম, দৈনিক বাংলা ও মতিঝিল এলাকায় ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির মাধ্যমে অশুভ শক্তিকে খুশি করেছে, পাকিস্তানিদের প্রেতাত্মাকে খুশি করেছে।  

ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, তাদের ভয়ঙ্কর তাণ্ডবের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে হেফাজত এবং জামায়াতে ইসলাম একই মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ মাত্র। হেফাজতের মুখোশ উন্মোচন হয়ে গেছে এবং প্রমাণিত হয়েছে হেফাজত আসলে ইসলাম বিরোধী সংগঠন, ইসলামের শত্রু“।

যুবলীগ চেয়ারম্যান হেফাজতের নৈরাজ্য থামাতে এবং জনজীবনের স্বস্তি ও নিরাপত্তা ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং জনগণের বীরোচিত ভূমিকার প্রশংসা করেন।

যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী প্রশ্ন করেন, ইসলামের নামে হেফাজত পবিত্র কোরআন শরীফ আগুন দিয়েছে। পবিত্র মসজিদ বায়তুল মোকাররমে আগুন দিয়েছে। এটা কোন ইসলাম? যেকোন ধর্মপ্রাণ মুসলমান জানে হেফাজত কতো বড় পাপ করেছে, পবিত্র ধর্মকে কিভাবে অপমান করেছে। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে, হেফাজতে আসলে ইসলাম রক্ষার জন্য মাঠে নামেনি, মাঠে নেমেছিল যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষায়।  

ওমর ফরুক চৌধুরী বলেন, হেফাজতের আন্দোলন প্রকৃতপক্ষে অবৈধ পন্থায় ক্ষমতা দখলের একটা ব্ল-প্রিন্ট। প্রধান বিরোধী দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ভূমিকা তীব্র নিন্দা জানিয়ে তিনি প্রশ্ন করেন আপনি কি হেফাজতের ১৩ দফা সমর্থন করেন? যদি করেন তাহলে স্পষ্ট করে বলুন। কিন্তু হেফাজতকে উসকে দিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে কখনও জনগণের চোখকে ফাঁকি দিতে পারবেন না। আর এটাকে রাজনৈতিক কৌশল হিসাবে ব্যবহারের চেষ্টা করবেন না। হেফাজতের ১৩ দফা দাবিকে অগ্রহণযোগ্য বলে মন্তব্য করে ওমর ফারুক বলেন, হেফাজতের আড়ালে আসলে জামায়াত-শিবির যুদ্ধাপরাধীদের গোষ্ঠী। যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষার জন্যই এই ১৩ দফা। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এদেশের মানুষের দাবি, তরুণদের দাবি। এদেশের যুব সমাজ এই দাবি আদায় করবেই, হেফাজতের হুমকি হামলা আর নাশকতার বিরুদ্ধে জনগণের জয় হবেই হবে।  

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, হেফাজতকে বেগম খালেদা জিয়াই উসকে দিয়েছেন। এটা এখন পরিষ্কার হয়ে গেছে, বেগম জিয়ার মদদেই হেফাজত মতিঝিল, পল্টনসহ বিভিন্ন স্থানে নাশকতা করেছে। বেগম জিয়া গণতন্ত্র নস্যাতের যে ষড়যন্ত্র করেছেন, সেই ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করতে হেফাজতকে ব্যবহার করেছেন। যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, ৫ মের ঘটনা, জামায়াত-শিবিরের বছর জুড়ে চলে আসা সন্ত্রাস-সহিংসতা এবং ’৭১-এ রাজাকার আল-বদরদের অতীত অপকর্মের একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি। এই নৃশংসতা তারাই করতে পারে যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। এরা স্বাধীনতা বিরোধী, যুদ্ধাপরাধী।  

ঐক্যবদ্ধভাবে এই অপশক্তির অশুভ তৎপরতা মোকাবেলা করার জন্য যুব সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল গণতান্ত্রিক শক্তিকে এখন ঐক্যবদ্ধ হয়ে যুদ্ধাপরাধীদের এই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে হবে।  

ওমর ফারুক চৌধুরী আরও বলেন, ধর্মের নামে যারা বাড়াবাড়ি করছে, তারা যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর জন্য মাঠে নেমেছে। এই সব ধর্মব্যবসায়ী, স্বাধীনতা বিরোধীদের ১৯৭১-এর মতো ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করতে হবে। তিনি বলেন, ’৭১ এ আমরা এসব রাজাকার, যুদ্ধাপরাধীদের পরাজিত করেছি, ২০১৩ সালেও তাদের পরাজিত করব। সারাদেশে হেফাজতের অযৌক্তিক তাণ্ডব, সন্ত্রাস এবং সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানিয়ে যুবলীগের চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশকে মধ্যযুগে ফিরিয়ে নেওয়ার, নারীকে ঘরে বন্দী করার হেফাজতি প্রস্তাব অগ্রহণযোগ্য। কোনো সুস্থ মানুষ তাদের দাবি মানতে পারে না। বিরোধী দলের নেত্রীর উদ্দেশ্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, আপনি একজন সম্মানিত নারী নেত্রী। দুবার প্রধানমন্ত্রী, শুধু মাত্র ক্ষমতার লোভে আজ যে হেফাজতকে আপনি সমর্থন করছেন, সমর্থন দিচ্ছেন, কাল সেই হেফাজত আপনাকে বোরখা পরাবে। যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন গণতান্ত্রিক ধারায় বিশ্বাসী হলে, হেফাজতকে প্রত্যাখান করুন, আসুন, নির্বাচনকালীন সময়ের সরকার পদ্ধতি কি হবে, তা নিয়ে আলোচনা করুন। একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে ‘জনগণের ক্ষমতায়ন’ অব্যাহত রাখতে বিরোধী দলীয় নেত্রীকে তিনি আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার তথ্যকণিকা

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

চেয়ারম্যান ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

সাধারণ সম্পাদক ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

যুবলীগ প্রকাশনা