যুবলীগ সংবাদ :

শোকাবহ আগস্ট মাসব্যাপী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কর্মসূচী যুবজাগরণ পাঠাগার ও বিক্রয়কেন্দ্র উদ্বোধন বঙ্গমাতাকে নিয়ে যুবলীগের স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে : যুবলীগ চেয়ারম্যান জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়তে যুবলীগের শপথ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস পালিত শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে যুবলীগের সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বইমেলায় যুবলীগের নান্দনিক আয়োজন যুবলীগ চেয়ারম্যান সম্পাদিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির ৭৭ তম জন্মদিন পালিত। পৌর নির্বাচনী প্রচারণায় যুবলীগের কমিটি গঠন মোমবাতি জ্বালিয়ে শহীদদের প্রতি যুবলীগের শ্রদ্ধা মালয়েশিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার অগ্রযাত্রার মিছিলে তারুণ্যের প্রেরণা আর সাহসের দিন শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস---যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী
যুবলীগের ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী সফল করার লক্ষে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
2016/11/02 01:15 PM
রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার বিশ্ব শান্তির দর্শন “জনগণের ক্ষমতায়ন”কে সুদৃঢ় ও সুসংহত করার দৃঢ় অঙ্গীকার নিয়ে জাতির পিতার আদর্শের পতাকাবাহী যুব সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ গৌরব ও ঐতিহ্যের ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামী ১১ নভেম্বর যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করতে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানসমূহ সুন্দর, সুশৃঙ্খল ও বর্নাঢ্যময় করার লক্ষ্যে আজ ১ নভেম্বর রোজ মঙ্গলবার সকাল ১০.০০ টায় ঢাকাস্থ হোটেল ইম্পেরিয়ালে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ-এর কেন্দ্রীয় বর্ধিত সভা-২০১৬ সংগঠনের চেয়ারম্যান মোহম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের। সভা সঞ্চালন করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ হারুনুর রশীদ, সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এর প্রেসিডিয়াম সদস্য সর্ব জনাব শহীদ সেরনিয়াবাত, উপস্থিত ছিলেন মজিবুর রহমান চৌধুরী, ডঃ আহম্মেদ আল কবির, মোঃ ফারুক হোসেন, সিরাজুল ইসলাম এমপি, মাহবুবুর রহমান হিরন, আব্দুস সাত্তার মাসুদ, আতাউর রহমান, এড. বেলাল হোসাইন, অধ্যাপক এবিএম আমজাদ হোসেন, এড. মোতাহার হোসেন সাজু, শাহজাহান ভুইয়া মাখন, স্থাপতি নিখিল গুহ, সৈয়দ মাহমুদুল হক, আনোয়ারুল ইসলাম, নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন এমপি, যুগ্ম সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদ মহি, মঞ্জুর আলম শাহিন, সুব্রত পাল, নাসরিন জাহান শেফালী, সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন মাহমুদ জাহিদ, আবু আহম্মেদ নাসিম পাভেল, ফজলুল হক আতিক, আমির হোসেন গাজী, এমরান হোসেন খান, আজাহার উদ্দিন, আসাদুল হক আসাদ, ফারুক হাসান তুহিন, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুল ইসলাম মিজু, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, ডঃ সাজ্জাদ হায়দার লিটন, নবী নেওয়াজ এমপি, শ্যামল কুমার রায়, কার্যনির্বাহী সদস্য শেখ ফজলে ফাহিম, শেখ ফজলে নাঈম, রওশন জামির রানা, ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তর-দক্ষিন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে মাইলনুল হোসেন খাঁন নিখিল, ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, ইসমাইল হোসেন, রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনাব ওবায়দুল কাদের বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগকে আবর্জনা ও পরগাছা থেকে মুক্ত করতে চাই। এ জন্য আওয়ামী যুবলীগকে সহায়তা করতে হবে। যুবলীগের প্রতিটি নেতা-কর্মীকে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির আদর্শের অনুশারী হতে হবে। তিনি বলেন, আমার প্রথম কাজ সারাদেশে দলকে আরো শক্তিশালী ও গতিশীল করা । আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করা। এবং ২০২১ সালে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত এবং ২০৪১ সালে দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত করা। সেই লক্ষে নিয়ে কাজ শুরু করেছি। আমার আপাতত লক্ষ আগামী নির্বাচন। ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে আমাকে সর্বোচ্চ মর্জাদা দিয়েছেন। আমি আমার সারা জীবনের পরিশ্রমের পুরস্কার পেয়েছি। আওয়ামী লীগে আমার একটি কমিটমেন্ট আছে। আমার সাধ্য ও শক্তি দিয়ে তা পুরন করার চেষ্টা করবো। আমি কোনো আঞ্চলিকতায় বিশ্বাস করি না। সভাপতির বক্তব্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেনদলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাবিজ বা পানি পড়া দিয়ে সংগঠন চালানো যাবে না। কর্মসূচী দিতে হবে। জনমত সৃষ্টি করতে হবে। সারাদেশে যুবলীগকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। তিনি বলেন, কর্মীর কাছে গ্রহনযোগ্য না হলে নেতা হওয়া গেলেও নেতা থাকা যায় না। এ জন্য নেতা না হয়ে দলের ম্যানেজার হতে হয়। রাজনীতিতে ম্যানেজ করতে হয়। এখানে বাহু বল বা পেশি শক্তির স্থান নেই। বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ঢাকা-লন্ডন দ্বিমূখী কবলে পড়ে বিএনপি সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছে। বিএনপি এখন বক্তৃতা বিবৃতির দলে পরিনত হয়েছে। জিয়াউর রহমান ছিলেন অপরাজনীতির মস্তিস্ক আর এরশাদ ছিলেন হৃদপিন্ড। বেগম খালেদা জিয়া ছিলেন সোয়া কোটি ভুয়া ভোট তৈরির কারিগর। আর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নের রাজনীতি করছেন। তিনি মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। দু:খি মানুষের মূখে হাসি ফুটিয়েছেন। সভায় সংগঠনের ৭৫টি জেলা শাখার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, আহবায়ক, যুগ্ম আহবায়কগণ এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার তথ্যকণিকা

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

চেয়ারম্যান ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

সাধারণ সম্পাদক ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

যুবলীগ প্রকাশনা