যুবলীগ সংবাদ :

শোকাবহ আগস্ট মাসব্যাপী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কর্মসূচী যুবজাগরণ পাঠাগার ও বিক্রয়কেন্দ্র উদ্বোধন বঙ্গমাতাকে নিয়ে যুবলীগের স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে : যুবলীগ চেয়ারম্যান জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়তে যুবলীগের শপথ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস পালিত শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে যুবলীগের সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বইমেলায় যুবলীগের নান্দনিক আয়োজন যুবলীগ চেয়ারম্যান সম্পাদিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির ৭৭ তম জন্মদিন পালিত। পৌর নির্বাচনী প্রচারণায় যুবলীগের কমিটি গঠন মোমবাতি জ্বালিয়ে শহীদদের প্রতি যুবলীগের শ্রদ্ধা মালয়েশিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার অগ্রযাত্রার মিছিলে তারুণ্যের প্রেরণা আর সাহসের দিন শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস---যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী
বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার যুবজাগরণ ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলা যুবলীগ
2014/11/22 04:47 PM

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার যুবজাগরণ ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে চট্টগ্রাম উত্তর দক্ষিণ ও মহানগর যুবলীগ। সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে নগরীর জিইসি কনভেনশন হলে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

হাজার হাজার নেতাকর্মীর হাততালির মধ্য দিয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। এসময় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বিএনপির তীব্র সমালোচনা করে বলেন, এদের মিথ্যাচারের রাজনীতির দেশের উন্নয়নের পথে বাধা সৃষ্টি করছে। কিন্তু এসব করে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বন্ধ করা যাবে না। তিনি বলেন, যুবলীগ চেয়ারম্যান যুবজাগরণের ডাক দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই যুবশক্তিই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, বাংলাদেশের যুবকদের রাজনীতির সর্বশ্রেষ্ঠ সংগঠন হচ্ছে যুবলীগ। দেশে দক্ষ যুবশক্তি বিনির্মাণের দায়িত্ব যুবলীগকে নিতে হবে। অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়তে হলে যুবশক্তিকে কাজে লাগাতে হবে।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম গতকাল নগরীর জিইসি কনভেনশন সেন্টারে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা যুবলীগের ‘যুব জাগরণ’ কর্মসূচির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখছিলেন। যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ ‘যুব জাগরণ’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফ বলেন, আওয়ামী লীগের সাথে যুবলীগের নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। দেশের সকল দুর্দিনে আওয়ামী লীগ এবং যুবলীগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। এই ভূমিকা ম্লান করা যাবে না। এই ভূমিকা আরো উজ্জ্বল করতে হবে। সংগঠন, দেশ ও জনগণের জন্য যুবলীগের ত্যাগ কোনদিন ম্লান হবেনা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যুবলীগ যদি তাদের নীতি-আদর্শে চলে তাহলে সংগঠন আরো অধিক শক্তিশালী হবে।

যুব জাগরণ কর্মসূচিতে যুবলীগ চেয়ারম্যানের বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে সৈয়দ আশরাফ উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, “যুবলীগ চেয়ারম্যান অনেক নির্দেশনা দিয়েছেন। তার নির্দেশনা মেনে চলুন। আমি মনে করি, আপনারা তার নির্দেশনা মেনে কাজ করলে যুবলীগ একটি আদর্শ সংগঠনে পরিণত হবে।”

বক্তব্যের শুরুতে যুবলীগ প্রতিষ্ঠার প্রসঙ্গ তুলে ধরে সৈয়দ আশরাফ বলেন, “স্বাধীনতার পর ছাত্রলীগ করে আসা নেতাদের জন্য একটি যুব সংগঠন গড়া প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছিল। তখন মণি ভাই (শেখ ফজলুল হক মণি) বললেন, ‘আওয়ামী লীগের যেহেতু কোন যুব সংগঠন নেই, একটি যুব সংগঠন হোক। আমি তখন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসাংগঠনিক সম্পাদক। তখন যুবলীগ গঠন নিয়ে ছাত্রলীগের মধ্যে ডিবেট হয়েছিল। পরে যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করা হয়। সেই যুবলীগ আজকে গৌরবের সাথে ৪২ বছর পার করেছে।”

নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু’র সভাপতিত্বে এ যুব জাগরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সংগঠনের চেয়ারম্যান মো. ওমর ফারুক চৌধুরী।

উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি বলেন, “শেখ হাসিনা এবং খালেদার মধ্যে তফাৎ কি সেটা বুঝতে হবে। হাসিনা করেন প্রেস কনফারেন্স অর্থাৎ সাংবাদিক সম্মেলন, আর খালেদা করেন প্রেস ব্রিফিং। শেখ হাসিনা সাংবাদিকেদের প্রশ্নের জবাব দেন। আর খালেদা জিয়া সাংবাদিকদের কোন প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে প্রেস ব্রিফিং করে চলে যান।

খালেদা জিয়া শুধু আন্দোলনের হুমকি দেন। তিনি সকাল মানেন না, ফযর মানেন না, উনি প্রতিদিন আন্দোলনের ডাক দেন।” ওমর ফারুক বলেন, “মি. তারেক রহমানকেও দেশে আনার কথা বলছে বিএনপি। আমরা বলছি ওয়েলকাম তারেক রহমান।

কিন্তু তারেক রহমানকে দেখি শুধু টেলিভিশনে বক্তৃতা দিতে। নেতা হতে হলে জনগণের ভালবাসা অর্জন করতে হয়। পুলিশের নির্মম মার সহ্য করতে হয়।” জিয়াউর রহমান রাজনীতিকে রাজনীতিকদের জন্য কঠিন করেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, “যে যত বেশি বেয়াদবি করতে পারবে এখন দেখি সে তত বড় নেতা। রাজনীতি এখন হয়ে গেছে ম্যানেজ এর রাজনীতি। পুলিশ-সাংবাদিক ম্যানেজ করতে পারলে অনেক বড় নেতা।”

ওমর ফারুক চৌধুরী সমুদ্রসীমা জয়ের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, “আমাদের সমুদ্রসীম?া বেড়েছে। এজন্য আগামীতে নতুন ৫০ লক্ষ ফিশিং ট্রলার দেয়া হবে। এসব ট্রলার পাবে দেশের যুব সমাজ। শিশু আর বুড়োরা ফিশিং ট্রলার দিয়ে কি করবে ?” তিনি বলেন, “আমরা ক্ষমতার জন্য রাজনীতি করি না। নির্বাচনে যাবার জন্য যুবলীগ রাজনীতি করে না। আমরা যুবলীগ করি জনগণকে কিভাবে ক্ষমতায়ন করা যায় তার জন্য। এ আদর্শ থেকে যুবলীগ বিচ্যুত হবে না। আমরা স্বপ্ন দেখাতে চাই, আমরা আশাবাদী হতে চাই।”

যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বিএনপি নেতা তারেক রহমানকে 'লন্ডনের ইতিহাসবিদ' আখ্যা দিয়ে বলেন, দূরদেশে বসে মিথ্যা ইতিহাস কপচিয়ে নেতা হওয়া যায় না। সাহস থাকে তো জেলের ঝুঁকি মাথায় নিয়ে দেশে এসে রাজনীতি করুন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্য আরো বক্তব্য দেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাভেদ, আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, দিদারুল আলম এমপি, সিডিএ চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা প্রশাসক এম এ সালাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দীন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক লতিফুর রহমান। সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মহিউদ্দন বাচ্চু।

অনুষ্ঠানে যুবগবেষণা কেন্দ্রের স্মারক প্রকাশনা 'বিশ্বের চোখে বাংলাদেশ' গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার তথ্যকণিকা

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

চেয়ারম্যান ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

সাধারণ সম্পাদক ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

যুবলীগ প্রকাশনা