যুবলীগ সংবাদ :

যুবজাগরণ পাঠাগার ও বিক্রয়কেন্দ্র উদ্বোধন বঙ্গমাতাকে নিয়ে যুবলীগের স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে : যুবলীগ চেয়ারম্যান জঙ্গিমুক্ত দেশ গড়তে যুবলীগের শপথ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস পালিত শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে যুবলীগের সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী বইমেলায় যুবলীগের নান্দনিক আয়োজন যুবলীগ চেয়ারম্যান সম্পাদিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির ৭৭ তম জন্মদিন পালিত। পৌর নির্বাচনী প্রচারণায় যুবলীগের কমিটি গঠন মোমবাতি জ্বালিয়ে শহীদদের প্রতি যুবলীগের শ্রদ্ধা মালয়েশিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার অগ্রযাত্রার মিছিলে তারুণ্যের প্রেরণা আর সাহসের দিন শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস---যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী
যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিন পালিত
2014/08/08 04:34 PM

৮ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহ-ধর্মীনী শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিন। এ উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিন পালিত  হয়েছে। সকাল ৯ টায় বনানী কবরস্থানে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও মোনাজাত, সকাল  ১০টায়, ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়র  প্রঙ্গনে আলোচনা সভা, কোরআন খানি ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব  করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় স্বাস্থ ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী জনাব মোহাম্মদ নাসিম এমপি , বিশেষ বক্তব্য রাখেন যুবলীগ সাধারন সম্পাদক মোঃ হারুনুর রশিদ, যুবলীগ যুগ্ম সম্পাদক মহউিদি্দন আহাম্মেদ মহি সভা পরিচালন করেন। এছাড়াও  বিকেল ৪ টায় ধানমন্ডি ৩২ নাম্বারের বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্স প্রঙ্গনে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কোরআন খানি ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।   

অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর প্রেসিডিয়াম সদস্যও মাননীয় স্বাস্থ ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী জনাব মোঃ নাসিম এমপি বলেন  শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বাঙ্গালী নারী জাতির রোল মডেল। আমার সৌভাগ্য হয়েছে তার স্নেহের সান্নিধ্য লাভ করার ,ছাত্রলীগ করার সুবাদে আমি তাকে খুব কাছে থেকে দেখেছি।এই মহীয়সী নারী তার সমস্ত জীবন নেতা কর্মীদের জন্য উৎসর্গ করেছেন । মন্ত্রী বলেন এই দিনে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলতেচাই সহ-ধর্মীনী হিসেবে তিনি প্রতিটি মূহুর্তে জতির পিতাকে সহোযোগিতা করেছেন, তিনি কোন রাষ্ট্রিয় সুযোগসুবিধা নেননি, রাষ্ট্রিয় কোন আনুষ্ঠানেও তিনি যাননি, নিরবে নিভৃতে তিনি বঙ্গ বন্ধুকে সাহস যুগিয়েছেন। দলের দুঃসময়ে তিনি নিজের গহনা ও সংসারের দ্রব্য সামগ্রী বিক্রি করে নেতা কর্মীদের অর্থ যুগিয়েছেন । ১৯৭৫ এর ১৫ আগষ্ট ভোর রাতে ঘাতকের বুলেট রক্তাক্ত করল সোনার বাংলার হৃদয়, রক্তাক্ত করল বাংলাদেশের মানচিত্র। স্বপরিবারে হত্যা করল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ও জীবনের ঝুকি নিয়ে দেশের জনগনের সেবা করে যাচ্ছেন।

সভাপতির বক্তব্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী শুরুতেই শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৮৪ তম জন্মদিনে তাকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্বরণ করেন, তিনি বলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব, নীরবে নিভৃতে যিনি কাজ করেছেন বাঙালি জাতির মুক্তির জন্যম তিনি জাতির পিতার সহধর্মিনী, বঙ্গবন্ধুর প্রেরণা, সাহস এবং উৎসাহের কেন্দ্রস্থল। বঙ্গমাতা এমন একজন নারী, যিনি তাঁর জীবনের সবকিছু ত্যাগ করেছেন, স্বামীর রাজনৈতিক জীবনের জন্য। নিজে বঞ্চিত হয়েছেন, অনটন, কষ্ট নীরবে সহ্য করেছেন।  কারো কাছে কোন অনুযোগ করেননি, কখনো রাগ করেননি। বঙ্গবন্ধুর “জাতির পিতা”  হয়ে উঠার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান তাঁর। কিন্তু তিনি থেকেছেন পাদপ্রদীপের আড়ালে, নীরবে, নিভৃতে। সম্প্রতি জাতির পিতার “অসমাপ্ত আত্নজীবনীতে”  বঙ্গবন্ধু তাঁর প্রিয় রেনু (বেগম মুজিবের ডাক না)  সম্পর্কে কিছু স্মৃতিচারণ করেছেন। ছোট কিন্তু আবেগঘন এই স্মৃতিগুলোই মূর্ত করেছে বঙ্গমাতার অবদান।এই স্মৃতিগুলোই প্রমাণ করে কী  মহীয়সী নারী ছিলেন তিনি। আজ এই মহাপ্রাণ নারীর জন্মদিন।জাতির পিতার সাথে তাঁর বিয়ে হয়েছিলে মাত্র তিন বছর বয়সে। ১৯৭৫’এর ১৫ই আগস্ট পর্যন্ত দীর্ঘ সময় তাঁরা ছিলেন এক আত্মা। একসঙ্গেই ছিলেন সুখ-দুঃখের জীবনের কঠিনতম সময় তারা পার করেছেন। পারস্পরিক বিশ্বাস আর শ্রদ্ধাই। বেগম মুজিব সেই নারী, যিনি স্বামীর আর্দশের জন্য জীবনে সুন্দরতম মুহূূর্তগুলো উৎসর্গ করেছেন। বঙ্গমাতা হলেন সেই নারী, যিনি বাঙালীর মুক্তির জন্য স্বামীকে উৎসর্গ করেছেন। বঙ্গমাতা হলেন, সেই মহীয়সী যিনি বাঙালির অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নিজের সব কষ্টকে জয় করেছেন। নিজে কোনদিন পাদপ্রদীপে আসেননি, উচ্চারিত হয়নি, কিন্তু তিনি ছিলেন জাতির পিতার প্রধান সহযোদ্ধা, প্রধান পরামর্শদাতা এবং প্রধান শুভাকাঙ্খী। জাতির পিতার “অসমাপ্ত আত্নজীবনী” পড়লে আমরা দেখি, বঙ্গবন্ধু যখন ছাত্র রাজনীতিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন তখনও তাঁর প্রিয় স্ত্রী রেনু হাত খরচের টাকা জমিয়ে স্বামীকে দিতেন, বাঙালির মুক্তির আন্দোলনের জন্য। এই জন্যই জাতির পিতা তাঁর আত্নজীবনীতে বলেছেন “রেণু খুব কষ্ট করতো কিন্তু কিছুই বলতো না। নিজে কষ্ট করে আমার জন্য টাকা-পয়সা যোগার করে রাখতো যাতে আমার কষ্ট না হয়।”আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় বঙ্গবন্ধুকে যখন প্যারোলে মুক্তির প্রসত্মাব প্রসত্মাব দেওয়া হয় তখন ঘৃণাভরে বেগম মুজিব তা প্রত্যাখান করেন। এই একটি  সিদ্ধান্ত বাঙালির মুক্তির সংগ্রামের আলোকিত পথ নির্দেশিকা। এই নেপদ্যচারিণী, সাহসিনী, আদর্শবাদী মহীয়সী নারী হলেন বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব। আজ তাঁর জন্মদিনে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলী।

সাধারন সম্পাদক মোঃ হারুনুর রশিদ তার বক্তব্যে বলেন বিএনপির আন্দলনের হুংকার ও ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে যুবলীগ চেয়ারম্যান ঘোষিত সমস্ত কর্মসূচী সমূহে রাজপথে থেকে ব্যাপক উপস্থিতির মাধ্যমে সকল কর্মসূচী বাস্তবায়নে নেতাকর্মীদের আহবান জানান। এছাড়া বক্তব্য রাখেন প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মজিবুর রহমান চৌধুরী,  মাহাবুবুর রহমান হিরন, আতাউর রহমান আতা, এডভোকেট বেলাল হোসেন, আব্দুস সাত্তার মাসুদ, এনায়েত কবির চঞ্চল, মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, অধ্যাপক আমজাদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক- ফজলুল হক আতিক, ফারুক হাসান তুহিন, উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য- নিখিল গুহ, মোতাহার হোসেন সাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক-আসাদুলহক আসাদ, দপ্তর সম্পাদক- কাজী আনিসুর রহমান, সম্পাদক মন্ডলির সদস্য -মিজানুল ইসলাম মিজু , সাজ্জাদ হায়দার লিটন, শাহ জালাল, উপ- সম্পাদক শেখ বোরহান উদ্দিন বাবু , ইকবাল মাহমুদ বাবলু , শ্যামল কুমার রায়, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মীর শররিফ হাসান লেনিন, আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগ সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল,সাধারন সম্পাদ-মোঃ ইসমাইল হোসেন, দক্ষিন যুবলীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনুদ্দিন রানা, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা ঢাকা জেলা যুবলীগ সভাপতি শফিউল আজম খান বারকু ।সহ  অন্নান্য কেন্দ্রীয় ও মহানগর নেতৃবৃন্দ।

রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার তথ্যকণিকা

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

চেয়ারম্যান ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

সাধারণ সম্পাদক ডেস্ক

পরিচিতি
ভাষণ
বার্তা

যুবলীগ প্রকাশনা